মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

পূর্বতন মামলার রায়

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ( স্থানীয় সরকার বিভাগ

১৩নং সলপ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়

ডাকঘর - সলপ, উপজেলা - উল্লাপাড়া, জেলা - সিরাজগঞ্জ ।

চেয়ারম্যানঃ খোন্দকার সহিদুল ইসলাম ।

মোবাইল নং - ০১৭৩০ - ৯৭০০১৮

শালিশনামা

স্থানঃ ১৩ নং সলপ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়                                                                          তারিখঃ ২০/০৯/২০১২ইং সময়ঃ সকাল -১১.০০ ঘটিকা

 

                          বাদীঃ                                                           বনা্ম                                              বিবাদীঃ 

১/ মোছাঃ হামিদান বেওয়া মোঃ আব্দুল হাই স্বামী মৃত - আঃ হামিদ পিতা মৃত - বাবর আলী প্রাং

২/ মোছঃ মর্জিনা বেগম গ্রাম - শ্রীবাড়ী স্বামী মৃত - নুরুল ইসলাম ডাকঘর - সলপ উভয় সাং - শ্রীবাড়ী উপজেলা - উল্লাপাড়া. ডাকঘর - সলপ জেলা - সিরাজগঞ্জ। উপজেলাঃ উল্লাপাড়া জলাঃ সিরাজগঞ্জ স্বাক্ষরঃ স্বাক্ষরঃ ক্রমিকনং উপস্থিত শালিশ কারকদের নাম ঠিকানা স্বাক্ষর ১। খোন্দকার সহিদুল ইসলাম চেয়ারম্যান সলপ ইউ,পি - ২। মোঃ নুরূল ইসলাম সদস্য সলপ ইউ,পি - ৩। মোঃ -মোঃ ওসমান গনি সদস্য সলপ ইউ,পি - ৪। মোঃ আঃ রাজ্জাক দারোগা গোপিনাথপুর - ৫। আইয়ুব খান মহেশপুর - ৬। মোঃ ইছাহাক আকন্দ হাড়িভাঙ্গা - ৭। মোঃ ওয়াজেদ আলী দেওয়ান শেখপাড়া - ৮। রজিমুদ্দিন শ্রীবাড়ী - ৯। মোঃ জাহিদুল ইসলাম শ্রীবাড়ী - ১০। মোঃ কায়েম উদ্দিন শ্রীবাড়ী - ৮ পাতা নং-২ ১১। মোঃ আঃ ছালাম বেপাড়ী সলপ- চরপাড়া - ১২। মোঃ আলম খলিফা শ্রীবাড়ী - ১৩। মোশারফ হোসেন সরাতৈল - সভায় ১৩ নং সলপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব খোন্দকার সহিদুল ইসলামকে সভাপতি করিয়া সভার কাজ শুরু হয় । সভাপতি সাহেব উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানাইয়া এবং সকলকে সত্য ও সঠিক তথ্য দেবার জন্য অনুরোধ জানাইয়া সভার কাজ আরম্ভ করেন ।সভাপতি সাহেব বাদী পক্ষকে সালিসী বৈঠকে ডাকিবার কারণ জিজ্ঞাসা করিলে ১নং বাদী বলেন যে, প্রায় ২২/২৩ বছর পূর্বে আমার স্বমাী মারা গেছে । তখন থেকেই নামিক বিবাদী অর্থাৎ আমার দেবর আঃ হাই পারিবারিক সম্পত্তি ভোগদখল করিয়া আসিতেছে। ২/৩ বছর পুর্বে আমরা বাদী গন বিবাদী মোঃ আঃ হাই এর নিকট আমাদের পারিবারিক সম্পত্তি র হিসাব চাইলে তিনি চালাকি চতুরতার মাধ্যমে হিসাব দেন এবং অনেক বেশি পরিমান জমি অন্যায় বাবে ভোগদখল করিতেছে। তাছারা আমার স্বামী মোঃ আঃ হামিদ জীবিত থাকা অবস্থায় কৃষকগঞ্জ বাজারে একটি ঘর নির্মাণ করিয়া ব্যবসা করিত । সে ঘর খানা আঃ হাই জবর দখল করিয়া তাহার ঘর বলিয়া দাবী করিতেছে। বাদীদ্বয় তাহাদের পারিবারিক সম্মত্ত্বি সঠিক ভাবে বন্টন করিয়া দেবার জন্য দাবি করেন। উপস্থিত বিচারক মন্ডলী তাহাদের পারিবারিক সম্পত্তির সমস্ত কাগজপত্র পুঙ্খনুরূপে পর্যবেক্ষন করে দেখেন যে, প্রত্যেক অংশিদার ৮১ শতক সম্পত্ত্বি মালিক হন অথচ বিবাদী আঃ হাই ৯৫ শতক সম্পত্তি ভোগ দখল করিয়া আসিতেছে।অর্থাৎ ১৪ শতক ভূমি বেশি ভোগ করিতেছে। দির্ঘক্ষণ যাবদ বিচারক মন্ডলী বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা ও পর্যালোচনা করিয়া সর্বসম্মতিক্রমে নিম্নরূপ সিদ্ধন্ত গ্রহন করেনঃ- ১. আঃ হাই যে ১৮শতক বাড়ীতে ঘর করে আছে সেখানেই থাকবে। ২. বাকী ১৮শতক বাড়ী নুরুলের বউ ভোগ দখল করবে। ৩. মূল বাড়ীর ১৪ শতক আঃ খালেক পিং আঃ হামিদ ভোগ দখল করবে। ৪. নুরুলের স্ত্রী ০৪ শতক জমি আঃ হাইকে দিবে এবং ০৩ শতক জমি দিবে খালেকদের । ৫. রেজিঃ ছাড়া যে ১৫শতক জমি আছে তাহা ০৩ জন অংশিদারই ০৫ শতক করে পাবে। ৬. ০৩ জন অংশিদার বাজারের ঘর খানার সমান অংশের মালিক হবেন। সভাপতি সাহেব বাদী ও বিবাদী উভয় পক্ষকে এই রায় মেনে নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন । বাদী এই রায় মেনে নিলেও বিবাদী রায় মেনে নেয় নাই।ফলে উর্ধ্বতন আদালতের স্মরনাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়া সভাপতি সাহেব সভার কাজ সমাপ্ত ঘোষনা করেন। সভাপতি ৯ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ( স্থানীয় সরকার বিভাগ ১৩নং সলপ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ডাকঘর - সলপ, উপজেলা - উল্লাপাড়া, জেলা - সিরাজগঞ্জ । চেয়ারম্যানঃ খোন্দকার সহিদুল ইসলাম । মোবাইল নং - ০১৭৩০ - ৯৭০০১৮ স্মারক নংঃ ইউ,পি/ সলপ/মোকদ্দমা /২০১২/ তারিখ - ১০/১০/২০১২-ইং । বাদী ও বিবদীর প্রতি সমন বাদী বিবাদী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মোছাঃ আশা পারভীন পিতা - মোঃ আঃ জলিল পিতা - মোঃ মাহবুবুর রহমান (মজনৃ) গ্রাম + ডাকঘর - ডিগ্রীরচর গ্রাম - পারমনোহারা উপজেলা - উল্লাপাড়া উপজেলা - উল্লাপাড়া জেলা - সিরাজগঞ্জ। জেলা - সিরাজগঞ্জ। নামিক বাদী গত ০৮/১০/১২ইং তারিখে অত্র ১৩-নং সলপ ইউনিয়ন পরিষদ গ্রাম আদালতে দ্বিতীয় বিবাহ করার অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন করিয়াছেন।আপনি স্বামীর ঘর করতে আগ্রহী নন বলে আবেদনে জানা যায় ।বাদী মোঃ মোস্তাফিজুর রাহমান উল্লাপাড়া উপজেলাধীন ৬নং দূর্গানগর ইউনিয়ন পরিষদ গ্রাম আদালতে (১) মোঃ মাহবুবুর রহমান ও (২) মোছাঃ আশা পারিভীন কে ২য় পক্ষ হিসাবে রেখে দাম্পত্য জীবন পুনরুদ্ধারে জন্য মামলা করে ব্যর্থ হয়েছেন। উক্ত গ্রাম আদালতের নোটিশে আপনারা সাড়া দেননি বলেও তাদের প্রতিবেদনে যানা যায় । উচ্চ আদালতে আপনার দায়েরকৃত মামলার জবানবন্দিতে আপনী সেচ্ছায় বাবার বাড়ীতে অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছেন। আপনি স্বামীর ঘর করতে আগ্রহী কি-না, অথবা স্বামীকে প্রত্যাখ্যান করতে চান কি-না, তাহা জানাতে আগামী ১৩/১০/২০১২-ইং ,রোজ শনিবার সকাল ১০.০০ ঘটিকায় নিম্ন স্বাক্ষরকারীর কার্যালয়ে আপনাকে স্ব - শরিরে উপস্থিত হয়ে মতামত প্রকাশকরার জন্য বলা হইল । আপনার উপস্থিতি এবং সুচিন্তিত মতামত উভয়ের দাম্পত্য জীবন পুনরুদ্দারে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আমি মনে করি।আপনি উক্ত তারিখে উপস্থিত না হলে আপনি আপনার স্বামী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে ঘরসংসার করতে আগ্রহী নন বলে প্রতিয়মান হবে এবং অত্র গ্রাম আদালত বাদীকে দ্বিতীয় বিবাহের অনুমতি প্রদানে বাধ্য হবে। আদেশক্রমে, খোন্দকার সহিদুল ইসলাম চেয়ারম্যান , ১৩নং সলপ ইউ,পি। উল্লাপাড়া , সিরাজগঞ্জ ।


Share with :

Facebook Twitter